বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন
প্রধান সংবাদ :
কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের সনদ পাওয়া যাচ্ছে সুরক্ষার অনলাইন পোর্টালে। হাইকোর্টে আসম ফিরোজ এমপি’র ঋণ পুনঃতফসিল নিয়ে রুল শুনানি বাউফলের কাছিপাড়ার পাকডাল গ্রামে অস্ত্রধারি সন্ত্রাসী জহির বাহিনীর হামলা চন্দ্রদীপের ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় আটক ০৯ মানসিক ভারসাম্যহীনদের পাশে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আকাশ ও “আহার” বাউফলের কনকদিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে অতর্কিত হামলা বাউফলের চন্দ্রদীপে দু-পক্ষের সংঘর্ষ আহত ২০ বাউফলে বিএমএসএফ’র কমিটি গঠন কঠোর লকডাউনের ১ম দিনে শক্ত অবস্থানে বাউফল উপজেলা প্রশাসন, মাস্ক না পড়ায় ০৯ পথচারীর অর্থদন্ড বাউফলে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আরো একজনের মৃত্যু

মেডিকেলে চান্স পাওয়া মুন্নীর দায়িত্ব নিলেন হুইপ ইকবালুর রহিম

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭১ জন নিউজটি পড়েছেন

পাবনার মেধাবী শিক্ষার্থী মোছা. জান্নাতুম মৌমিতা মুন্নীর মেডিক্যাল কলেজে পড়াশোনার দায়িত্ব নিলেন  জাতীয় সংসদের হুইপ দিনাজপুর সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিম।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় মেধাক্রমে ৩১১০তম হয়ে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান মোছা. জান্নাতুম মৌমিতা মুন্নী। তিনি পাবনা মেডিকেল কলেজ কেন্দ্র থেকে পরীক্ষায় অংশ নেন।
ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে তিনি পেয়েছেন ৬৯.৭৫ নম্বর। শিক্ষা জীবন জুড়েই অভাব অনটনে আর্থিক দুশ্চিন্তা ছিল মুন্নীর নিত্যসঙ্গী। মেধার জোরে সব বাধা জয় করে মেডিকেলে পড়ার সুযোগ পেলেও সেই আর্থিক দুশ্চিন্তাই তাকে ঘিরে ধরেছিল।
বৃহস্পতিবার (০৮ এপ্রিল) সকালে মুন্নী এবং তার পরিবারের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন হুইপ ইকবালুর রহিম। তখন ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন মুন্নীর বাবা, মা ও চাচা। দীর্ঘ আলাপের পরে হুইপ তাদের আশ্বস্ত করেন মুন্নীর মেডিক্যাল কলেজে ভর্তিসহ সমস্ত বিষয় নিয়ে। মুন্নীর পরিবার আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়লে হুইপ ইকবালুর মেয়েকে নিয়ে কোনো ধরনের দুশ্চিন্তা না করার জন্য বলেন।
এ বিষয়ে শিক্ষার্থী মুন্নী গণমাধ্যমকে বলেন, আমার পরিবার যে সিদ্ধান্ত দেবে সেটি আমার সিদ্ধান্ত। আমি আমার বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে চাই।
মুন্নীর বাবা বাকী বিল্লার বলেন, ‘এখন আমি চিন্তামুক্ত। সংবাদ প্রকাশের পরে অনেকেই আমার মেয়ের শিক্ষার জন্য এগিয়ে এসেছেন। হুইপ সাহেব আমাক ফোন দিয়েছিলেন। তার সঙ্গে কথা বলিছি, আমরা সবাই। তিনি আমার মেয়ের সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। আমরা তার অধীনেই ওই মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করার জন্য মনস্থির করেছি। ’
বাংলাদেশ সংসদের হুইপ দিনাজপুর সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত সংসদ সদস্য এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ আমার প্রয়াত বাবার নামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নামকরণ করেছেন। আমি সংসদের যে ভাতা পাই সেই অর্থ দিয়ে প্রতি বছরই মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাহায্যে ব্যয় করে থাকি। বর্তমানে আমাদের এই মেডিক্যাল কলেজে ৫ জন শিক্ষার্থী বিনাখরচে পড়াশোনা করছেন। ইতোমধ্যে ১৪ জন এমবিএস পাস করেছেন। গণমাধ্যমে সংবাদটি দেখার পর আমি ওই অদম্য শিক্ষার্থীর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের চিন্তামুক্ত করেছি। তার মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষা গ্রহনের জন্য যে অর্থ ব্যয় হবে সেটা আমি বহন করবো। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে আর প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনায় আমরা সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে চাই।
প্রঙ্গত, মুন্নী ছোটবেলা থেকেই অত্যন্ত মেধাবী, সে পোড়াডাঙ্গা হাজী এজেম আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। ছোট থেকেই তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন ছিল। স্বপ্ন পূরণের জন্য তিনি অধিকাংশ সময়ই লেখাপড়ার পিছনে ব্যয় করেছেন।
সূত্রঃ সময় সংবাদ

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আর নিউজ
© All rights reserved © 2019 amaderbauphal.com
themesba-lates1749691102