শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন

নৌকায় ভাটা, আনারসে জোয়ার

এম এ হান্নান
  • প্রকাশিতঃ শনিবার, ১৯ জুন, ২০২১
  • ২৬১ জন নিউজটি পড়েছেন

বাউফলের চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচেন ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে চেয়ারম্যান, মেম্বার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণায় জমজমাট হয়ে উঠেছে। চলছে শেষ মূহুর্তের দেয়া ও ভোট প্রার্থনা। ভোটারদের দিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রæতি। আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে রয়েছে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী। যাদের একজন হলেন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী  (নৌকা) মো. আমির হোসেন হাওলাদার অপর জন হলেন বতর্মান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস) মো. এনামুল হক। বিভিন্ন সূত্র পর্যালোচনা করে দেখা যায় সকল সমিরকণেই এগিয়ে রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান এনামুল হক, পিছিয়ে রয়েছেন আমির হোসেন হাওলাদার।

শুক্রবার সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, ২০১৩সালে ১৩টি চর নিয়ে তেঁতুলিয়ার বুকে জন্ম নেয় চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন। ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠার পর ২০১৬ সালে প্রথম নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মো. আমির হোসেন হাওলাদারকে প্রায় তিনহাজার ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয় মো. এনামুল হক । নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই পাল্টে যেতে শুরু করে চন্দ্রদ্বীপরে চেহারা। অবহেলিত জনপদে নির্মিত হয় পাকা সড়ক- কাঁচা অসংখ্য সড়ক, পোল-ব্রিজ, কালভার্ট, মসজিদ মাদ্রাসা ও নতুন নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভবন। সর্বশেষ বিচ্ছিন্ন পদে তেঁতুলিয়া নদীর তলদেশ দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে পৌঁছায় বিদ্যুতের আলো। সব মিলিয়ে চন্দ্রদ্বীপের মানুষের জীবন মানে আসে পরিবতন। এতে করে আগামী ২১জুনের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এনামুল হকের পক্ষে ঝুঁকছে ভোটাররা।

অপরদিকে আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী বাচাই কালে চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এককভাবে এনামুল হকের নাম প্রস্তাব করেন। উপজেলা আওয়ামীলীগ এনামুল হকের নাম ১নম্বর তালিকায় রেখে ও  আমির হোসেন হাওলাদারের নাম ২নম্বরে রেখে জেলা আওয়ামীলীগের সুপারিশ নিয়ে দলের সভাপতির দপ্তরে পাঠায়। গত নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীর অভিযোগে এনামুল হকের নাম বাদ দিয়ে দ্বিতীয় বারের মত আমির হোসেন হাওলাদারকে দলীয় মনোনয়ন দেন। এনিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের মধ্যে চরম অসন্তষের সৃষ্টি হয়। উপজেলা শহরের বিক্ষোভও করে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এমতাবস্থায় দলীয় নেতাকর্মীরা এনামুল হককে সমর্থক করলে তিনি প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়।

নির্বাচন প্রসঙ্গে চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো.বাবুল হাওলাদার, যুবলীগ সধারন সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান ও ছাত্রলীগ সভাপতি নাসির উদ্দিন বলেন,‘ এনামুল হক তৃণমূল  আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী। কিন্তু যাকে নৌকা দেওয়া হয়েছে তিনি জনবিচ্ছিন্ন, জনশূণ্য। আনারসের বিজয় সুনিশ্চিত জেনে নৌকার প্রার্থী বিভিন্ন অপপ্রচারনা চালাচ্ছে।

এবিষয়ে নৌকার প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. আমির হোসন হাওলাদার বলেন,‘ বিদ্রোহী প্রার্থী এনামুল হক আলকাছ মোল্লা নৌকার কর্মী সমর্থকদের এলাকা ছাড়ার প্রকাশ্য  হুমকি দিচ্ছেন। প্রচার- প্রচারণায় বাঁধা দিচ্ছেন।  নৌকার ফেস্টুন সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তিনি জয়ী হবে বলে আশাবাদী।

এবিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের (বহিস্কৃত) সাধারন সম্পাদক মো. এনামুল হক  বলেন,‘ আমি গত নির্বাচনে জনগণের ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। নির্বাচিত হয়ে চন্দ্রদ্বীপের অবহেলিত মানুেষর ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করেছি। এবারও জনগণের সমর্থন নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। আশা করি জনগণ আমাকে পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে  জনসেবা অব্যাহত রাখার  সুযোগ দিবেন।

আমাদের বাউফল ডট কম পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে জানাচ্ছি পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আর নিউজ
© All rights reserved © 2019 amaderbauphal.com
themesba-lates1749691102