বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন
প্রধান সংবাদ :
বাউফলে গাঁজাসহ এক মাদক কারবারি আটক দুই লঞ্চের বেপরোয়া প্রতিযোগিতায় অকালে প্রান দিতে হলো শিশু মার্জিয়ার। বাউফলে আবাসিক হোটেলে অভিযান, আপত্তিকর অবস্থায় যুবক-যুবতী আটক বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে গুলি, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ বাউফলে বৃদ্ধ স্বামী ও স্ত্রীকে গাছের সাথে বেধে বসতঘরে হামলা, ভাংচুর বাউফলে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পোস্টার ঝোলানোয় বাধা, ১০ কর্মীকে কুপিয়ে জখম বাউফলে দুর্ধর্ষ চুরি! খাট, ফ্রিজ, টিভি উধাও বাউফলে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী সহ দু’পক্ষের আহত ২০ প্রতিবন্ধী ইয়ামিনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন হাসীব তালুকদার বাউফলে সড়ক দুর্ঘটনায় চালকের মৃত্যু

বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে গুলি, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিতঃ শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০২২
  • ৩০৬ জন নিউজটি পড়েছেন

পটুয়াখালীর বাউফলে দিনে দুপুরে ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বগা ইউনিয়নের শাপলাখালী এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মৃধা ও হাওলাদার পরিবারের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার দুপুরে বগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ ও তার ভাই হাসিব হাওলাদার ৮/১০টি মোটরসাইকেল নিয়ে শাপলাখালী মোড়ে যায়। তারা প্রথমে ফাঁকা গুলি ছুড়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে। এরপর সোহাগ মৃধার ফার্নিচারের দোকান, জসীমের মুদির দোকান, কবিরের ফার্ম্মেসী ও তোফায়েল এর চায়ের দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে দোকান থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় সময় সোহাগ মৃধাকে আটক করে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করা হয়।

ঘন্টাব্যাপী তান্ডব শেষে ফিরে যাওয়ার সময় রাসেল নামের (২৫) এক মোটরসাইকেল চালককে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে জখম করে তারা। আশংকাজনক অবস্থায় রাসেলকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

হামলার শিকার সোহাগ মৃধা বলেন, “২০১৩ সালের ৫ আগষ্ট মনির মৃধাকে পিটিয়ে জখম করা হয়। ৯ আগষ্ট ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মনির মৃধা মারা যান। ওই ঘটনায় বগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান ও তার বাবা বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদারসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলার অন্যতম স্বাক্ষী আমি। এরই জের ধরে হাসান মাহমুদ ও হাসিব হাওলাদার আজকে সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়েছে।”

বগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “ছাত্রলীগ নেতা নুরে রোমানকে আটক করে রেখেছিল সোহাগ মৃধা। এ খবর পেয়ে আমার ভাই হাসিব তাকে উদ্ধার করতে যায়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে সামান্য কথাকাটাকাটি হয়েছে। ঘটনার সময় আমি ছিলাম না।”

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, “দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বের জের ধরে কিছু ঘটনা ঘটেছে। এখনও কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

ট্রিবিউন

আমাদের বাউফল ডট কম পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে জানাচ্ছি পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আর নিউজ
© All rights reserved © 2019 amaderbauphal.com
Design By MrHostBD
themesba-lates1749691102